Home / রাজনীতি / খালেদা জিয়া ও ড. ইউনূস যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান না: কামরুল ইসলাম

খালেদা জিয়া ও ড. ইউনূস যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান না: কামরুল ইসলাম

পাকিস্তানের ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ আচরণের বিরুদ্ধে সারা দেশ যখন প্রতিবাদে উত্তাল তখন বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া ও নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ বুদ্ধিজীবীরা কেন চুপ তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, “তাদের চুপ থাকার কারণ হলো তারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান না।”

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় কামরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

কামরুল অভিযোগ করে বলেন, “বিএনপির আন্দোলনের প্রধান বিষয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার নয়। তারা দেশকে পাকিস্তানের মতো অকার্যকর করতে চায়। আমরা যেমন মুক্তিযুদ্ধে ব্রিজ ভেঙেছি পাক বাহিনীর চলাচলে বাধা দেয়ার জন্য, আজ বিএনপি-জামায়াত রেলের স্লিপার খুলে ফেলছে সাধারণ মানুষকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে। তাদের জন্মই হয়েছে পাকিস্তানের আইএসআইয়ের টাকায়। তাদের পূর্বসুরী জিয়াউর রহমানও একই কাজ করেছিল।”

পাকিস্তানকে বর্বর জাতি হিসেবে উল্লেখ করে কামরুল বলেন, “পাকিস্তান একটি অকার্যকর রাষ্ট্র। এদেশকেও তারা অকার্যকর করতে চায়। এদেশের তালেবানদের পক্ষ হয়ে পাকিস্তানের তালেবানরা আমাদের হাই কমিশনকে উড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করেছে। তবে পাকিস্তানের এই নিন্দা প্রস্তাবের মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয়ে গেছে, এদেশের কারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে আর কারা বিপক্ষে।”

তিনি দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, “পাকিস্তানের এজেন্ট বিএনপি জামায়াতিদের রুখতে হলে আপনাদের একাত্তরের মতো আবার যুদ্ধে নামতে হবে। অন্যথায় দেশ বাঁচানো যাবে না।”

সংগঠনের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ড. শা ই ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল হক আলম প্রমুখ।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ