Home / রাজনীতি / আলোচনা ফলপ্রসূ হলে আর কর্মসূচি নয় : বিএনপি

আলোচনা ফলপ্রসূ হলে আর কর্মসূচি নয় : বিএনপি

আলোচনা শুরু হওয়ার আগে থেকেই বিরোধীদলের কর্মসূচি চলছিল তবে আলোচনা ফলপ্রসূ হলে ও সরকারের পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পেলে কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হবে বলে জানিয়েছে প্রধান বিরোধীদল বিএনপি। গতকাল গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। তিনি বলেন, জাতিসংঘের মহাসচিবের বিশেষ দূত তারানকো চলে যাবার পর আলোচনা বন্ধ হওয়া সম্মানজনক হবে না। কূটনীতিকরা সমঝোতা করছে এটা আমাদের দেশের রাজনীতিবিদদের জন্য অসম্মানজনক কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, জাতিসংঘের কর্মকর্তা কূটনীতিক নয়। আমরা জাতিসংঘের সদস্য। জাতিসংঘ আমাদেরই প্রতিষ্ঠান। তাই আমাদের কোন সমস্যা হলে তারা সমাধানের উদ্যোগ নিতেই পারেন। তিনি বলেন, তারানকো কেন? আমাদেরই উচিত ছিল বৈঠক করা, আলোচনা চালিয়ে যাওয়া। যতক্ষণ পর্যন্ত সমাধান না হয়। আলোচনা আমরা নিজেরাই করতে পারি, নিজেদেরই করা উচিত। এখন আমরা একসঙ্গে বসতে পারি নাই। কিন্তু মহাসচিবের উদ্যোগে আমরা একসঙ্গে বসতে পেরেছি এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।

বিএনপির সঙ্গে আওয়ামী লীগের বৈঠকে অগ্রগতির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বৈঠক চলছে। বৈঠকে যারা উপস্থিত ছিলেন তারাই অগ্রগতি সম্পর্কে বলবেন।

জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার ফাঁসির রায়ের কার্যকরের বিষয়ে বিএনপির অবস্থান জানতে চাইলে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এটা উচ্চ আদালতের বিচারাধীন বিষয়। তাই এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করা ঠিক হবে না।’

সংবাদ সম্মেলনে নজরুল ইসলাম বলেন, বংলাদেশের জনগণ এখন বন্দী। দেশ এখন পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে দেশে যে হত্যা, নৈরাজ্য, নির্যাতনসহ অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে তার দায় সরকারকে নিতে হবে। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, এখনো সময় আছে। জনগণের দাবি মেনে নির্দলীয়, নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে দাবি মেনে নিন। আত্মঘাতী মত পরিহার করুন। দাবি না মানলে আন্দোলন চলবে। তিনি বলেন, চলমান আন্দোলনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় সরকারি দল। শুধু কেন্দ্রীয় নয়, তৃণমূল পর্যায়ের সব নেতাকে গ্রেফতার করলেও আন্দোলন থামানো যাবে না বলে ঘোষণা দেন তিনি। এ সময় তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের হত্যা, গুমের নিন্দা জানান।

পরে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয় থেকে বুধবার বিকেলে দেয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নিহত ২ জন, গ্রেফতার ৭০ জনের অধিক, গুলিবিদ্ধ ৭০ জনের অধিক, আহত ৭১৫ জনের অধিক, মামলার আসামি ১ হাজার ৫শ’ জনের অধিক, নিখোঁজ ৫ জন বলে জানানো হয়।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ