Home / রাজনীতি / আলোচনা হয়েছে আলোচনা হবে

আলোচনা হয়েছে আলোচনা হবে

চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সমঝোতার লক্ষ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে। জাতিসংঘ মহাসচিবের দূত অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোর মধ্যস্থতায় গতকাল রাজধানীর গুলশানে দু’দলের নেতাদের মধ্যে দ্বিতীয় দফা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দু’দলের মহাসচিবের নেতৃত্বে ওই বৈঠকে কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে সে বিষয়ে কোন দলই মুখ খুলছে না। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮-দলীয় জোটের সহিংস হরতাল-অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহারের আহ্বান জানানো হয়। অন্যদিকে প্রধান বিরোধীদল বিএনপির পক্ষ থেকে গ্রেফতারকৃত সব নেতাকর্মীর মুক্তি দাবি করা হয়েছে। নতুন করে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার না করা এবং সভা-সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করতে দেয়ার দাবি জানানো হয়।

দু’দল সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এসব বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছালেই আসন্ন নির্বাচন নিয়ে দু’দলের মধ্যে আরও আলোচনা হবে। দু’দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোও জানিয়েছেন, দু’দলই আলোচনা চালিয়ে যেতে সম্মত হয়েছে। দু’দলের তাদের মধ্যে তৃতীয় দফা আলোচনা হবে বলেও তারানকো জানান।

গতকাল গুলশানে দু’দলের নেতাদের বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বৈঠকের বিষয় পরে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গণমাধ্যমকে জানানো হবে। এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সভাপতিম-লীর সদস্য নূহ-উল-আলম লেলিন সংবাদ’কে বলেন, আগামীকাল (আজ) হয়তো সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বৈঠকের বিস্তারিত জানানো হতে পারে। আলোচনার অগ্রগতি প্রসঙ্গে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। দু’দলের বৈঠকে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। দলে ছিলেন উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, গওহর রিজভী প্রমুখ। বিএনপির প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার সঙ্গে ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আবদুল মঈন খান, শমসের মবিন চৌধুরী প্রমুখ।

এদিকে গতকাল বিকেলে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান জানান, সংলাপের মাধ্যমে একটা সমাধানের পথ উন্মুক্ত হোক_ এটা জনগণের প্রত্যাশা। তবে সে রকম অগ্রগতি তো এখনও আমরা গণমাধ্যমকে জানাতে পারিনি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, জাতিসংঘের বিশেষ দূত অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকো চলে যাওয়ার পর দু’দলের মধ্যে আলোচনা বন্ধ হয়ে গেলে তা সম্মানজনক হবে না। তিনি বলেন, জাতিসংঘের মধ্যস্থতা অসম্মানজনক নয়। তবে তারানকোর মধ্যস্থতায় দু’দলের দু’দিনের আলোচনার ফলাফল নিয়ে কিছু জানাতে রাজি হননি তিনি।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ