Home / জাতীয় / রানাপ্লাজায় মাথার খুলি উদ্ধার, ধ্বংসস্তূপে অগ্নিসংযোগ!
রানাপ্লাজায় মাথার খুলি উদ্ধার, ধ্বংসস্তূপে অগ্নিসংযোগ!

রানাপ্লাজায় মাথার খুলি উদ্ধার, ধ্বংসস্তূপে অগ্নিসংযোগ!

কয়েকদিনের ব্যবধানে সাভারে ধসে পড়া রানাপ্লাজার ধ্বংসস্তূপ থেকে আরো একটি মাথার খুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় ধ্বংসস্তূপের নিচে আরো অনেক শ্রমিকের লাশ চাপা পড়ে আছে অভিযোগ করে উত্তেজিত জনতা ধ্বংসস্তূপে অগ্নিসংযোগ করেছে।

রবিবার দুপুর ৩টার দিকে ধসে পড়া ভবনের পেছনে রাখা ধ্বংসস্তূপ থেকে মাথার খুলিটি উদ্ধার করে সাভার মডেল থানা পুলিশ। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা সেখানে আগুন ধরিয়ে দিলে পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হয়ে ওঠে।

প্রতেক্ষ্যদর্শী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দুপুর ৩টার দিকে পথশিশুরা ধসে পড়া রানা প্লাজার পেছনে রাখা ধ্বংসস্তূপের ভেতরে লোহা কুড়াতে গিয়ে মাথার খুলিটি খুঁজে পায়।

স্থানীয়রা বিষয়টি সাভার মডেল থানায় ফোন করে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মাথার খুলিটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ নিয়ে মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে রানাপ্লাজার ধ্বংসস্তূপ থেকে দুটি মাথার খুলি ও এক শ্রমিকের দেহাবশেষ কুড়িয়ে পাওয়ার ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ধ্বংসস্তূপের পাশে রাখা বিভিন্ন মালামালে আগুন ধরিয়ে দেয়। মুহূর্তের মধ্যেই আগুনের লেলিহান শিখা দাউ দাউ করে জ্বলে উঠলে তা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে সাভার ফায়ার সার্ভিরে দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় আধ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শ্রমিক জানান, রানাপ্লাজার ধ্বংসস্তূপ থেকে এখনও অনেক স্বজনেরা তাদের প্রিয়জনের লাশ খুঁজে পাচ্ছেন। ঘটনার প্রায় ৮ মাস পার হয়ে গেলেও ডিএনএ টেস্টসহ যাবতীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরও অনেকেই তাদের স্বজনের লাশ বুঝে পায়নি।

তারা অভিযোগ করেন, উদ্ধার তৎপরতার সময় খুব দ্রুততার সাথে কাজ করায় অনেক শ্রমিকের লাশ চাপা পড়ে আছে ধ্বংসস্তূপের নিচে।

এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফা কামাল জানান, রানাপ্লাজার ধ্বংস্তূপের কাছ থেকে একটি মাথার খুলি উদ্ধার করা হয়েছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ