Home / জাতীয় / সাদুল্লাপুরে নাশকতা রুখবে আ. লীগ-বিএনপি একসাথে
সাদুল্লাপুরে নাশকতা রুখবে আ. লীগ-বিএনপি একসাথে

সাদুল্লাপুরে নাশকতা রুখবে আ. লীগ-বিএনপি একসাথে

নিজেদের এলাকায় নাশকতা প্রতিরোধে একমত হয়েছেন গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতারা।

এ পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার ১৮ দলের নেতাকর্মীরা অবরোধের সময় কোনো ভাংচুরের ঘটনা ঘটেনি। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বিরোধী নেতা-কর্মীদের কোনো বাধাও দেয়নি।

এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সাদুল্লাপুর প্রেসক্লাবের আয়োজনে বুধবার রাতে আলোচনা শেষে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতারা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন।

এছাড়া যে কোনো রাজনৈতিক দল বা দূর্বৃত্ত নাশকতা বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটানোর চেষ্টা করলে সম্মিলিতভাবে তা প্রতিহত করতেও একমত হন দুদলের নেতারা।

উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছালাম বলেন, “জনগণের জানমালের ক্ষতিসাধন হয় এমন কর্মসূচি বিএনপি কখনো করে নাই, ভবিষ্যতেও করবে না।”

উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোজাহারুল ইসলাম বলেন, “আমরা অন্যের মতামতকেও সম্মান করি, তবে কোনো ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপকে নয়।”

এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সাদুল্লাপুর থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম বলেন, “সারাদেশে শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় সাদুল্লাপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগ একটি মডেল হয়ে থাকবে।”

গত ১৩ ডিসেম্বর উপজেলার জামালপুর বাজারে জামায়াত-শিবিরের হামলায় গুরুতর আহত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়া খান বিপ্লব এখনও চিকিৎসাধীন।

এই হামলার পর উপজেলা সদরে বিএনপি নেতা ডা. মইনুল হাসান সাদিকের বাসভবনে অগ্নিসংযোগ, বিএনপি নেতা জাহিদুল ইসলামের দোকান ও যুবদল সভাপতির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর ও তার মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রেসক্লাব স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে একটেবিলে বসানোর উদ্যোগ নেয়।

প্রেসক্লাব সভাপতি মাহমুদুল হক মিলনের সভাপতিত্বে বুধবার রাতের এই ৩ ঘণ্টাব্যাপী আলোচনায় অংশ নেন এই দুটি দল ও তাদের সঙ্গে যুক্ত যুব ও ছাত্র সংগঠনের নেতারা।

এছাড়াও বক্তব্য দেন স্থানীয় সাংবাদিক তাজুল ইসলাম রেজা, সাদুল্লাপুর বণিক সমিতির সভাপতি শফিউল স্বপন, ব্যবসায়ী সামসুজ্জোহা প্রামাণিক রাঙ্গা ও বনগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল কাইয়ুম হুদা।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ