Home / বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি / গা শিউরে ওঠা চেহারার ৫ ভয়াল উদ্ভিদ!

গা শিউরে ওঠা চেহারার ৫ ভয়াল উদ্ভিদ!

প্রকৃতি মানেই কি সবুজ গাছপালা এবং উজ্জ্বল, চোখ জুড়ানো রঙের ফুল-ফল? নাকি এর বাইরেও কিছু আছে? চিন্তা করুন তো, খরগোশ, হরিণ, কুকুর বা বেড়ালের মত আদুরে প্রাণীর পাশাপাশি যেমন সাপ, ব্যাঙ, গিরগিটি এবং বাদুড়ের মত কুচ্ছিত প্রাণী আছে, তেমনই আমাদের পরিচিত চোখ জুড়ানো গাছপালার পাশাপাশি ভূতুড়ে এবং অদ্ভুত গাছপালাও তো থাকাটা স্বাভাবিক, তাই না? এমনই কিছু গাছপালার সাথে পরিচিতও হয়ে নিন, যাদেরকে দেখলে আপনার নাড়িভুঁড়ি উল্টে আসবে অথবা ভয়ে গা শিউরে উঠবে নিমিষেই!
4.8in by 7in@300ppi, RGB
১) ব্লিডিং টুথ ফাঙ্গাস
এই ব্যাঙের ছাতাটি দেখলে আসলেই মনে হয় কোনও একজন মানুষের ক্ষতবিক্ষত দাঁত এবং তা থেকে ফোঁটায় ফোঁটায় বের হয়ে আসা রক্তের কথা মনে আসে। এদের অন্যান্য নামের মাঝে আছে স্ট্রবেরি অ্যান্ড ক্রিম, রেড জুস টুথ এবং ডেভিলস টুথ। নাম যেটাই হোক না কেন, বোঝাই যাচ্ছে এটি দেখতে আসলেও দাঁতের মত এবং এর ওপরে রক্তের মত এই উজ্জ্বল কিছু ফোঁটা থাকে। এই ছত্রাকের ব্যাপারে বলা হয়, এটি খাওয়ার অযোগ্য। তবে খাওয়ার যোগ্য হলেই বা কি কেউ এমন ভয়ংকর চেহারার ছত্রাক খেতে চাইত? তবে এর ওপরের এই রক্তের মত ফোঁটাগুলোয় রয়েছে অ্যান্টিকোঅ্যাগুলেন্ট এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণাগুণ।

২) চাইনিজ ব্ল্যাক ব্যাটফ্লাওয়ার
বাদুড় এমনিতেই এমন একটা প্রাণী যার থেকে আমরা দূরে দূরে থাকি। পারতপক্ষে একে দেখা যায় না মানুষের আশেপাশে আর দেখা গেলে অনেকেরই গলা শুকিয়ে যায় ভয়ে। আর এই বাদুড়ের মত চেহারার যদি একটা গাছ হয়, তবে সেই গাছ দেখেও যে আমাদের মনে একই রকমের বিতৃষ্ণা জন্মাবে সেটা ধরেই নেওয়া যায়। চাইনিজ ব্ল্যাক ব্যাটফ্লাওয়ার দেখতে শুধু বাদুড়ের মত নয়, বরং এর আবার নিজস্ব কিছু টেন্টাকল বা শুঁড়ের মোট অঙ্গ আছে, রয়েছে কিছু পরিমাণে নড়াচড়া করার ক্ষমতা এমনকি এর ফল ঝুলে থাকলে দেখে মনে হয় একটা বাদুড় উলটো হয়ে ঝুলে ঘুমিয়ে রয়েছে।

৩) ডল’স আই
প্রথম দেখায় মনে হয়, গাছের ডালের ওপর ভর করে বসানো আছে একের পর এক চোখের মণি! ভূতুড়ে, নয় কি? শুধু তাই নয়, ডল’স আই বা হোয়াইট বেনবেরি নামের এই ফলগুলো বেশ বিষাক্ত।
02_1
৪) সি অ্যানিমোন মাশরুম
মাশরুম বা ছত্রাক জিনিসটাই এমন, যে সাধারণ গাছপালার সৌন্দর্যের ছিটেফোঁটাও নেই তাদের মাঝে। কিছু কিছু মাশরুম খেতে ভালো। কোনটি আবার দেখতে রঙিন কিন্তু বিষাক্ত। যেমন এই সি অ্যানিমোন মাশরুম।

বয়স কম থাকলে এরা সাধারণ মাশরুমের মতই থাকে। কিন্তু বয়স বাড়লেই এদের দুর্গন্ধযুক্ত লাল শাখাপ্রশাখা ছড়াতে শুরু করে। গাছের ভেতরের অংশটি দেখে মনে হয় দগদগে ঘা হয়ে আছে। এর মাধ্যমে পোকামাকড় আকর্ষণ করতে থাকে তারা।

৫) ডেভিল’স ক্ল
ডেভিল’স ক্ল এর বীজের আধার দেখে মনে হতে পারে ভয়ংকর কোনও ধরণের মাকড়সা যা মাটিতে নিশ্চল হয়ে ওঁত পেতে আছে, সুযোগ মত ঝাঁপিয়ে পড়বে শিকারের ওপরে। এদের পাওয়া যায় অ্যারিজোনায়। আশপাশ দিয়ে যাওয়া প্রাণীর পায়ের সাথে এরা আটকে যায় এবং পরিবাহিত হয়ে যায় বিভিন্ন জায়গায়।এরপর সেই প্রাণীর পায়ের চাপায় ভেঙ্গে যায় বীজের ওপরের আবরণ এবং তা থেকে গাছ জন্মায়।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ