Home / রেসিপি / রান্না করতে বিরক্ত লাগে? তাহলে পড়ুন এই টিপস গুলো!

রান্না করতে বিরক্ত লাগে? তাহলে পড়ুন এই টিপস গুলো!

যাদেরকে প্রতিদিনই ৩ বেলা রান্নার কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে হয় তাদের জন্য রান্নাঘর একটি বিভীষিকার নাম। শখ করে একটু-আধটু রান্না করা বেশ পছন্দের কাজ হলেও প্রতিদিন গৎবাঁধা নিয়মে রান্না করতে কী পরিমাণ অসহ্য লাগতে পারে, তা যারা ভুক্তভোগী কেবল তারাই জানেন। কর্মজীবী মহিলারা এই সমস্যায় পড়েন সব চাইতে বেশি। সারাদিন অফিসের কাজ শেষে এবং সকালে উঠে অফিসে যাওয়ার তাড়ায় তারা রান্নাঘরটাকে নিজেদের শত্রুর মত দেখে থাকেন।

এই সব কিছুর মূলে রয়েছে রান্নাঘরের অগোছালো ব্যবস্থাপনা। একটি সাজানো গোছানো রান্না ঘরে কাজ করার আনন্দই আলাদা। তাই রান্নাঘরকে একটু মনে মত করে সাজিয়ে নিয়ে কাজ করা শুরু করুন। দেখবেন বন্ধুর মতই আপন মনে হবে রান্নাঘরটিকেও।

  • -রান্নাঘরে কেবিনেট হলে সব চাইতে বেশি সুবিধা হয়। এতে করে প্রতিটি কেবিনেটে প্রয়োজনীয় জিনিস গুছিয়ে রাখা যায় এবং মনে রাখতেও সুবিধা হয় কোন জিনিসটি কথায় রয়েছে। যদি রান্নাঘরে কেবিনেটের ব্যবস্থা না থাকে তবে তাক সমৃদ্ধ কোন আলমারি কিনে নিন রান্না ঘরের জন্য।
  • -সকল ধরণের মশলা আলাদা আলাদা বোতলে ভরে গায়ে লেবেল লাগিয়ে দিন। এতে করে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। এবং অগোছালো ভাব দূর হবে।
  • -ময়লা ফেলার জন্য আলাদা করে জায়গা রাখুন এবং একবেলা রান্না করার সময় কোনো সবজি কাটার ময়লা এবং অন্যান্য বাতিল জিনিস একজায়গায় জমিয়ে রাখুন। আলাদা আলাদা করে জমাবেন না। পরে একজায়গা থেকে নিয়ে ফেলে দিন।
  • -যখন যে জিনিসটি ময়লা হবে তা সিঙ্কে জমিয়ে না রেখে ধুয়ে ফেলার চেষ্টা করুন। এতে সময় বাচবে এবং অগোছালো ভাব দূর হবে।
  • -রান্নার সময় কোমরে একটি কাপড় রাখুন। অনেকের হাত মোছার অভ্যাস রয়েছে। চট করে হাত মুছে ফেলতে পারবেন কোমরে রাখা কাপড়ে।
  • -রান্নাঘরে রান্নার সাথে সম্পৃক্ত জিনিস ছাড়া অন্য কিছু রাখবেন না ভুলেও।
  • -ধোয়া বাসন কোসন রাখার র্যা ক চুলা এবং সিঙ্ক থেকে দূরে রাখবেন।
  • -রান্না শেষে অবশ্যই চুলা এবং এর আসেপাশের জায়গা পরিষ্কার করে রাখবেন।
  • -রান্নাঘরের দেয়ালে একটু উজ্জ্বল রঙ ব্যবহার করুন।
আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ