Home / লাইফস্টাইল / মেয়েরা যে ৬টি “মিথ্যা” কথা বলে প্রেমিকের সাথে

মেয়েরা যে ৬টি “মিথ্যা” কথা বলে প্রেমিকের সাথে

ভালোবাসার সম্পর্কে মিথ্যা কথা কমবেশি প্রেমিক-প্রেমিকা উভয়েই বলে থাকেন। কেউ নিজের স্বার্থে অথবা কোনো বিপদে পড়ে, কিংবা মজা পাবার জন্য মিথ্যা কথা বলে থাকেন প্রায় প্রতিদিনই। বলা হয়, যে মিথ্যা কথায় কারো ভালো হয় সেই মিথ্যা সত্য থেকে বেশী শক্তিশালী। কিন্তু যে মিথ্যাগুলো অযথাই বলা হয় সেগুলো? আপাত দৃষ্টিতে এই ধরনের মিথ্যা কথাগুলো বলা মাঝে মাঝে জরুরী মনে হয়। এমনিই কিছু মিথ্যা কথা মেয়েরা তার প্রেমিকের সাথে বলে থাকেন। সবাই যে এমনটি করেন তা ঠিক নয়, কিন্তু বেশিরভাগ মেয়েদের মধ্যেই এই মিথ্যাগুলো বলার প্রবণতা দেখা যায়। দেখে নিন কোন মিথ্যা গুলো মেয়েরা তার প্রমিকের কাছে বলে থাকেন।

প্রাক্তন প্রেমিকের যত দোষ
ভালোবাসা যতই গভীর হোক না কেন কোনো মেয়েই তার প্রাক্তন প্রেমিকের সাথে ব্রেকআপের প্রকৃত রহস্য বর্তমান প্রেমিকের সামনে উন্মোচন না। বরঞ্চ ব্রেকআপের দোষ সম্পূর্ণ প্রাক্তন প্রেমিকের ঘাড়ে চাপিয়ে বসে থাকেন। হয়তো কারো কারো ক্ষেত্রে আসলেই প্রাক্তন প্রেমিকের দোষে ব্রেকআপ হয়। কিন্তু সব দোষ তো আর কারো একার হতে পারে না। যাই হোক না কেন, যার দোষেই পূর্বের সম্পর্কে ভাঙন আসুক না কেন মেয়েরা বর্তমান প্রেমিকের কাছে প্রাক্তন প্রেমিকের দোষটাই তুলে ধরেন। কারণ কেউই চান না নিজের দোষটুকু সামনে আনতে।

নিজের বয়সের ব্যাপারে মিথ্যা কথা
এই মিথ্যা কথাটি বলার প্রবণতা কমবেশি সব মেয়ের মধ্যেই আছে। প্রেম, বিয়ে সব সম্পর্কেই নিজের বয়স লুকায় মেয়েরা। নিজের বয়স লুকানোটা আসলে মিথ্যা কথার পর্যায়ে পড়ে তা কোনো মেয়েই মানতে চান না। একটু কম বয়েসি হিসেবে পরিচিতি পাবার জন্য এই মিথ্যাটি বলে থাকেন মেয়েরা। এই মিথ্যা কথা বলা আসলে মেয়েরা পরিবার থেকেই শিখে থাকেন। স্কুল কলেজের রেজিস্ট্রেশনের সময়, বিয়ের কথা বার্তা চলার সময় অনেক অভিভাবককেই মেয়ের বয়স লুকোতে দেখা যায়। এর থেকেই এই মিথ্যে বলার সূচনা হয়।

আমার কোনো ছেলে বন্ধু নেই
একটি কলেজ কিংবা ইউনিভার্সিটি পড়ুয়া মেয়ের ছেলে বন্ধু থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু মেয়েরা এই ছেলেবন্ধুর ব্যাপারেও মিথ্যা বলে থাকেন। বেশিরভাগ মেয়েরাই তার প্রেমিককে বলেন যে তার কোনো ছেলেবন্ধু নেই অথবা ছেলেবন্ধুর সংখ্যা হাতেগোনা কয়েকজন। এই মিথ্যা বলার পেছনে দুটি কারণ থাকে। প্রথমত, যদি প্রেমিক মেয়েটির ছেলেবন্ধু থাকার ব্যাপারে রাগ কিংবা অসম্মতি প্রকাশ করে। আর দ্বিতীয়ত, অন্য ছেলেদের সাথে ফ্লার্টিং সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য।

নিরীহ সাজার আপ্রান চেষ্টা
বেশিরভাগ মেয়েই তার নিজের বন্ধুবান্ধব কিংবা নিজের জগতে যতই কুটিল কিংবা রাগী বা জেদি হোক না কেন, নিজের প্রেমিকের সামনে নিজেকে নিরীহ ও শান্তশিষ্ট ভাবে উপস্থাপন করার জন্য মিথ্যা বলে থাকেন। আমাকে সবাই বোকা বলে, আমি সবার সাথে কুটনামি করে কথা বলতে পারি না, আমাকে সবাই খেপায় এই ধরনের ন্যাকামি কথা যা মেয়েরা বলেন, তার প্রায় সবই মিথ্যা। নিজেকে নিরীহ একজন হিসেবে প্রেমিকের সামনে উপস্থাপন করতেই এই মিথ্যার আশ্রয়।

উত্যক্ত করছে অন্য পুরুষ
এই কাজটি অনেক মেয়েই করে থাকেন। সম্পর্কে নিজের গুরুত্ব ও প্রেমিকের কাছে নিজের দাম বাড়ানোর জন্য অনেক মেয়ে মিথ্যা বলে থাকেন। এই ধরনের মিথ্যার মধ্যে পড়ে উত্যক্ত করার ব্যাপারটি। অনেক মেয়েকে তার প্রেমিকের কাছে অভিযোগ করতে দেখা যায় যে তাকে অনেকেই ফোনে উত্তক্ত করে । অনেকক্ষেত্রেই এই উত্তক্ত করার কথাটি মিথ্যা থাকে। আসলে এই ধরনের কথা বলে মেয়েরা প্রেমিককে জানাতে চান অনেক ছেলে তার হ্যাঁ বলার জন্য অপেক্ষা করছে। মেয়েরা ভাবেন এতে করে তার প্রেমিক তাকে আলাদা গুরুত্ব দেবেন।

নিজের পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে বাড়িয়ে বলা
নিজের পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে বাড়িয়ে বলার প্রবণতা প্রায় সব মেয়ের মধ্যেই দেখা যায়। বাবার সহায় সম্পত্তি কিংবা ভাইয়ের প্রতিপত্তির ব্যাপারে বাড়িয়ে বলে নিজেকে দুর্লভ একজন হিসেবে উপস্থাপন করতে ভালোবাসেন অনেক মেয়েই। বাবাকে অনেক বড় কেউ হিসেবে বললে প্রেমিক তাকে অনেক বেশী গুরুত্ব দেবেন ভেবে এই ধরনের মিথ্যা কথা বলতে দেখা যায় মেয়েদেরকে। নিজেকে এই মিথ্যার মাধ্যমে দুর্লভ করে তুলতে পছন্দ করেন অনেক মেয়েই।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ