Home / আন্তর্জাতিক / যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে ফের গুলির ঘটনা, আহত ২, হামলাকারীর আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে ফের গুলির ঘটনা, আহত ২, হামলাকারীর আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যের একটি স্কুলের একজন ছাত্র গুলি চালিয়ে দুজন ছাত্রকে আহত করার পর নিজের বন্দুকের গুলিতেই আত্মহত্যা করেছে, জানিয়েছে পুলিশ। আহত দু জনের মধ্যে গুরুতর আহত হয়েছে একজন। হামলাকারী একটি শটগান হাতে ওই স্কুলে প্রবেশ করে নির্দিষ্ট একজন শিক্ষককে খুঁজতে থাকলে তার এক সহপাঠী কর্তৃক বাধাপ্রাপ্ত হয়, জানিয়েছেন অ্যারাপাহো কাউন্টি শেরিফ। ওদিকে তাকে খোঁজা হচ্ছে জানতে পেরে আগেভাগেই স্কুল থেকে পালিয়ে যান ওই শিক্ষক।যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রাথমিক স্কুলে গুলিতে ২০ জন শিশু নিহত হওয়া উপলক্ষে বার্ষিক শোকদিবস পালনের একদিন আগে ঘটলো এই হামলার ঘটনা। কানেকটিকাট রাজ্যের নিউটন শহরের স্যান্ডি হুক এলিমেন্টারি স্কুলে অ্যাডাম ল্যানযার চালানো ওই হামলায় ২০ জন শিশুর পাশাপাশি ছয়জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষও মারা যান।অ্যারাপাহো কাউন্টি শেরিফ গ্রেসন রবিনসন জানান, স্থানীয় সময় ১২টা ৩৩ মিনিটে (১৯:৩৩ জিএমটি) অ্যারাপাহো হাই স্কুলে প্রবেশ করে সন্দেহভাজন ওই ছাত্র। উল্লিখিত স্কুলসহ ওই এলাকার অন্য সব স্কুলে তালা লাগানো ছিলো তখন। গুলির খবর পেয়ে ছুটে এসে স্কুলের ভেতরে প্রবেশ করে ছাত্রদের মাথার উপর হাত তুলে বাইরে চলে যাওয়ার হুকুম দেয় সশস্ত্র পুলিশ। শটগানধারীকে বাধাদানকারী ১৫ বছর বয়সী এক ছাত্রীকে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তারা। আহত আরো একজন ছাত্রকেও ভেতরে আবিষ্কার করে তারা। সন্দেহভাজন বন্দুকধারী সেই ছাত্রের মৃতদেহও দেখতে পায় পুলিশ, একই বন্দুকের গুলিতে খানিক আগে আত্মহত্যা করেছে সে।বন্দুকধারী ছাত্রের নাম এখনো প্রকাশ করেনি পুলিশ। তবে তারা জানিয়েছে, হামলা একাই চালিয়েছে সে। তার পরিচয়ও তারা জানে। ওই শিক্ষক ও তার মধ্যে কোনো বিষয়ে বিবাদের কারণে প্রতিশোধ নিতেই স্কুলে প্রবেশ করেছিলো সে। দুটো পেট্রল বোমাও পাওয়া গেছে স্কুলের ভেতর। কলোরাডোর লিটলটনস্থ কলামবাইন হাই স্কুলে গুলিতে ১৪ জন ছাত্র প্রাণ হারায় ১৯৯৯ সালের এপ্রিলে, তা থেকে মাত্র আট মাইল পুবে অবস্থিত এ স্কুল।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ