Home / আন্তর্জাতিক / পূর্ব চীন সাগরে জাপানের সেনা ইউনিট

পূর্ব চীন সাগরে জাপানের সেনা ইউনিট

বিতর্কিত পূর্ব চীন সাগরে জাপান নতুন করে একটি সামরিক ইউনিট মোতায়েন করতে যাচ্ছে। বুধবার দেশটির একটি সামরিক পরিকল্পনা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ কথা জানিয়েছে রয়টার্স।
সম্প্রতি পূর্ব চীন সাগরে বিতর্কিত এই দ্বীপপুঞ্জকে ঘিরে চীনের আকাশ প্রতিরক্ষা অঞ্চল গড়ে তোলার পর জাপানের পক্ষ থেকে সর্বশেষ এই উদ্যোগের খবর জানা গেল।
খবরে বলা হয়, পূর্ব চীন সাগরে অবস্থিত বিতর্কিত দ্বীপপুঞ্জ যা জাপানে সেনকাকু, চীনে দিয়াইউ নামে পরিচিত। এই দ্বীপপুঞ্জের খুব কাছেই নাহা সামরিক ঘাঁটিতে নতুন এই সামরিক ইউনিটটি মোতায়েন করবে জাপান।
নাহা ঘাঁটিটি ওকিনাওয়া দ্বীপের খুব কাছে অবস্থিত। সামরিক এই ইউনিটটি স্থল ও জল উভয় পথেই যুদ্ধ করতে পারবে। বুধবার দেশটির ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) সদস্যরা দুটি নততুুন সামরিক নীতিমালা সংক্রান্ত খসড়া নিয়ে আলোচনা করেছে। পরে তা সাংবাদিকদের জানানো হয়। এই খসড়া থেকে দশ বছর মেয়াদি একটি সামরিক নীতিমালা গ্রহণ করবে জাপান। তবে এটি পার্লামেন্টে পাস হতে হবে।
খসড়া অনুযায়ী জানা গেছে, নাহা ঘাঁটিতে ২০টি যুদ্ধবিমান নিয়ে একটি বহর পাঠানো হবে।
এতে করে সেখানে দুটি সামরিক ইউনিট স্থাপিত হবে। আগে থেকেই সেখানে একটি সামরিক ইউনিট মোতায়েন রয়েছে।
এছাড়া চালকবিহীন বিমান নিয়ে ই-২সি নামে একটি বিমানের নজরদারি ইউনিটও গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছে জাপান।
জাপানের এই সামরিক পদক্ষেপ এ অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়িয়ে দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিশ্বের দুটি বৃহত্ অর্থনীতির দেশের সংঘাতে জড়িয়ে পড়লে তা সমগ্র বিশ্বকেই প্রভাবিত করবে। উল্লেখ্য, চীন বর্তমান বিশ্বে দ্বিতীয় আর জাপান তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ