Home / আন্তর্জাতিক / পাক-ভারত পরমাণু যুদ্ধ হলে মারা যাবে ২০০ কোটি মানুষ

পাক-ভারত পরমাণু যুদ্ধ হলে মারা যাবে ২০০ কোটি মানুষ

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যে সম্ভাব্য পরমাণু যুদ্ধ হলে বিশ্বব্যাপী দুর্ভিক্ষ দেখা দেবে এবং তাতে মারা যাবে ২০০ কোটি মানুষ। সেইসঙ্গে ধ্বংস হয়ে যাবে মানব সভ্যতা। মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ আশঙ্কা প্রকাশ করেছে নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত দুইটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ দুই দেশের মধ্যে পরমাণু যুদ্ধ সীমিত আকারে হলেও তা বায়ুমণ্ডলে বিপর্যয় সৃষ্টি করবে এবং ফসলের উৎপাদনে ধস নামবে। যার ফলে বিশ্বের খাদ্যবাজারের ওপর বহুমুখী প্রভাব পড়বে এবং বিশ্বব্যাপী দুর্ভিক্ষ দেখা দেবে।

ইন্টারন্যাশনাল ফিজিশিয়ান্স ফর দ্যা প্রিভেনশন অব নিউক্লিয়ার ওয়ার এন্ড ফিজিশিয়ান্স ফর সোশ্যাল রেসপন্সিবিলিটি ২০১২ সালের এপ্রিলে এ সংক্রান্ত প্রাথমিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সে প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বে একটি পরমাণু যুদ্ধ ১০০ কোটি মানুষের প্রাণহানি ঘটাতে পারে।

প্রতিবেদনের দ্বিতীয় সংস্করণে সংগঠন দুইটি বলেছে, তারা বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ চীনের ওপর সম্ভাব্য এ যুদ্ধের প্রভাবকে হিসাবে আনেননি। কারণ, ভারত-পাকিস্তান পরমাণু যুদ্ধের প্রভাবে চীনে মারাত্মক খাদ্য ঘাটতি দেখা দেবে।

প্রতিবেদনের লেখক ইরা হেলফান্ড বলেছেন, উন্নয়শীল বিশ্বে ১০০ কোটি মানুষের মৃত্যু (পরমাণু বোমার আঘাতে তাতক্ষণিক মৃত্যু) মানব ইতিহাসে অভুতপূর্ব বিপর্যয় সৃষ্টি করবে। এরপর চীনের ১৩০ কোটি মানুষের ওপর সে যুদ্ধের প্রভাবকে যদি হিসাব করা হয় তাহলে যা দাঁড়াবে তার অর্থ হলো- গোটা মানব সভ্যতার ধ্বংস হয়ে যাওয়া।

হেলফান্ড বলেন, ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর ভারত ও পাকিস্তান তিনবার সর্বাত্মক যুদ্ধে জড়িয়েছে। কাজেই দীর্ঘদিনের সে শত্রুতাকে বিবেচনায় এনে এ দু’টি দেশের মধ্যে পরমাণু যুদ্ধ হতে পারে বলে এ সমীক্ষা চালানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্বের অন্যান্য পরমাণু শক্তিধর দেশেরও পরমাণু যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়েছেন তারা। সূত্র: আইআরআইবি।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ