Home / খেলা / মেসি নন, আর্জেন্টিনার বর্ষসেরা পোত্রো

মেসি নন, আর্জেন্টিনার বর্ষসেরা পোত্রো

ক্লাবের হয়ে দুর্দান্ত খেললেও ঠিক বিপরীত অবস্থা জাতীয় দলে। আর্জেন্টিনার হয়ে সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেন না। চলতি বছর পুরনো এ অভিযোগটা ভুল প্রমাণ করে দেন লিওনেল মেসি। তার দারুণ নৈপুণ্যে আগেভাগেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে উঠে যায় আর্জেন্টিনা। আর বার্সেলোনার হয়ে তো গত এক বছরে করেছেন অসংখ্য রেকর্ড। গোল করেছেন টানা ১৯ ম্যাচে। বার্সাকে জিতিয়েছেন লিগ শিরোপা। ২০১৩ সালে ইনজুরি তাকে ভোগালেও বছরটা একেবারে বাজে কাটেনি মেসির। কিন্তু তার এতসব অর্জনকে বোধহয় বড় করে দেখতে নারাজ আর্জেন্টাইনরা। তাই ২০১৩ সালের সে দেশের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হিসেবে মেসিকে বেছে নেয়নি তারা। বরং বর্ষসেরা হলেন টেনিস তারকা হুয়ান মার্টিন দেল পোত্রো। ২০১৩ সালে টেনিসে যার কি না উল্লেখযোগ্য কোনো সাফল্যই ছিল না। একজন টেনিস খেলোয়াড়ের সাফল্য ধরা হয় গ্র্যান্ড স্লাম ট্রফিকে। চলতি বছর গ্র্যান্ড স্লাম জেতা দূরের কথা, একটি ফাইনালেও খেলা হয়ে ওঠেনি পোত্রোর। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ড থেকেই নিতে হয়েছে বিদায়। এরপর ইনজুরির কারণে খেলা হয়নি ফ্রেঞ্চ ওপেন। উইম্বলডনের সেমিফাইনাল থেকে বিদায়ের পর বছরের শেষ গ্র্যান্ড স্লাম টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় রাউন্ডে হেরে যেতে হয় তাকে। অথচ মেসিকে টপকে এই দেল পোত্রোই হলেন আর্জেন্টিনার বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ! গ্র্যান্ড স্লাম না জিতলেও ২০১৩ সালে মোট চারটি ট্রফি ঘুরে তুলেছেন পোত্রো। জিতেছেন বাসেল, টোকিও, ওয়াশিংটন এবং রটারডাম ওপেন। এদিকে ১৩ জানুয়ারি জুরিখে ঘোষণা করা হবে ২০১৩ সালের ব্যালন ডি’অর। গত চার বছর এ পুরস্কার উঠেছে মেসির হাতে।

বালোতেল্লির স্বপ্ন
সত্যিকারের মহাতারকারা কখনও নিজের ঢোল নিজে পেটান না। কারণ তারা জানেন এবং মানেন লোকে যাকে বড় বলে সেই বড় হয়। আর যারা তা করেন তাদের জন্য একটি বাংলা প্রবাদ দারুণ প্রযোজ্য-ফাঁকা কলসি বাজে বেশি। কিন্তু মারিও বালোতেল্লি কোনো নিয়ম-কানুন বা রীতি-প্রথার ধার ধারেন না। তাই তো এসি মিলানের এ স্ট্রাইকার বললেন, আগামী বিশ্বকাপ আসরে বিশ্বের সেরা স্ট্রাইকার হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করার স্বপ্ন দেখছেন তিনি। ইতালির হয়ে ২৯ ম্যাচে ১২ গোল করা ২৩ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার। ইন্টানেট।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ