Home / খেলা / শ্রীলঙ্কা বোর্ডকে আশ্বস্ত করেছে বিসিবি

শ্রীলঙ্কা বোর্ডকে আশ্বস্ত করেছে বিসিবি

উদ্ভূত রাজনৈতিক পরিস্থিতি নতুন এক চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি)। এর আগে কখনোই নিরাপত্তাজনিত কারণে বিদেশি কোনো দল বাংলাদেশ সফর বাতিল করেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দল সফর অসমাপ্ত রেখে ফিরে যাওয়ার পর এখন নতুন আরেকটি কাজে ব্যস্ত বিসিবি। আগত দল থেকে শুরু করে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) এবং ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি) নিরাপত্তার আশ্বাস দিতে হচ্ছে বিসিবিকে। সর্বশেষ যেমন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে আশ্বস্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বিসিবির ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী।

দুই দিন আগে শ্রীলঙ্কার একটি দৈনিকে দেশটির প্রধান ক্রিকেট নির্বাহী নিশান্থ রানাতুঙ্গার উদ্বেগ প্রকাশের খবর জানেন নিজাম উদ্দিন, ‘পত্রপত্রিকায় যা দেখছেন, তাতে উদ্বিগ্ন হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। আমরাও সফরের আগে নিরাপত্তা বিষয়ে খোঁজখবর নেই। তবে আমাদের দেশের সঠিক চিত্রটা জানি আমরা। সেই মতে শ্রীলঙ্কা এবং আসন্ন বিভিন্ন টুর্নামেন্টের যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নিরাপত্তা ইস্যুতে আশ্বস্ত করা হয়েছে।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজ যুব দল সফর বাতিল করে চলে যাওয়ার পর আইসিসি এবং এসিসির পাশাপাশি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডকেও পরিস্থিতি অবহিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী, ‘তাৎক্ষণিকভাবে ওদের বিষয়টি জানানো হয়েছে, কোন পরিস্থিতিতে এবং কী কারণে ক্যারিবীয়রা চলে গেছে।’

এদিকে শ্রীলঙ্কার স্থানীয় দৈনিক ‘দ্য মিরর’ পত্রিকায় রানাতুঙ্গার উদ্ধৃতিতে লঙ্কান বোর্ডের নিজ উদ্যোগে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের ইঙ্গিত রয়েছে। সে ক্ষেত্রে শ্রীলঙ্কা থেকে কোনো নিরাপত্তাদল বাংলাদেশে আসবে কি না, সেটি জানা নেই নিজাম উদ্দিনের, ‘প্রতিটি সফরের আগে দ্বিপক্ষীয় চুক্তিতে (এমওইউ) নিরাপত্তা ইস্যু যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়া হয়ে থাকে। সেই মতে লঙ্কান বোর্ডের সঙ্গে অনেক আগে থেকেই এসব নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। তবে এখনো পর্যন্ত তাদের পক্ষ থেকে নিরাপত্তাদল পাঠানোর কোনো ইচ্ছার কথা শুনিনি, তাই এটা নিয়ে কিছু বলতে পারছি না। তবে টাইম টু টাইম আমরা ওদের পরিস্থিতি জানাব। আমার মনে হয় না এ সফর নিয়ে কোনো সমস্যা হবে।’

শ্রীলঙ্কা দলের বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে ২৪ জানুয়ারি। কদিন আগে এক সংবাদ সম্মেলনে শ্রীলঙ্কা দলের আগমনের আগেই পরিস্থিতি শান্ত হবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। বোর্ডের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে, বোর্ড সভাপতির বক্তব্যের ছাপ রয়েছে শ্রীলঙ্কা বোর্ড বরাবর প্রেরিত বিসিবির আশ্বাসে। যেমন, চিঠিতে বোঝানোর চেষ্টা হয়েছে যে এটা কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নয়, স্রেফ রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব, যা আসন্ন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে কেটে যাবে বলে ধারণা দেওয়া হয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে। এতে দীর্ঘ গৃহযুদ্ধের শিকার লঙ্কানদের আশ্বাস পেলেও পেতে পারে বিসিবি।

অবশ্য আরেকটি সুবিধা আছে বিসিবির, যা বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশের সময়ও উল্লেখ করতে ভোলেননি নিশান্থ রানাতুঙ্গা, ‘এমন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতা আমাদেরও রয়েছে। সেসব সময় এশিয়ার অন্য দেশগুলোর মতো বাংলাদেশও আমাদের সহায়তা করেছে, সেটি ভুললে হবে না।’ সব মিলিয়ে পরিস্থিতি যা, তাতে জানুয়ারি মাসে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসা কিংবা পুরনো বন্ধুত্বের সূত্র ধরে শ্রীলঙ্কা দলের বাংলাদেশ সফর বাতিল হওয়ার আশঙ্কাকে ঘিরে চিন্তাগ্রস্ত না হলেও চলছে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ