Home / এভিয়াট্যুর / এগার, বার, তের || 11.12.13

এগার, বার, তের || 11.12.13

আজকে কোনো কাগজ পত্রে স্বাক্ষর করার সময় তারিখ লেখতে গিয়ে একটু থমকেও যেতে পারেন আপনি! কারণ, আপনার লেখতে হবে ১১.১২.১৩; মানে এগার বার তের! একই সিরিয়ালের তিনটি অংক কিভাবে আসলো, কোনো ভুল হচ্ছে না তো?

না, মোটেও ভুল হচ্ছে না। এক জীবনে একবার পাওয়া যায়, এমন দিন আজ। আগামী এক শতাব্দীতে এমন দিন পাওয়া যাবে না আর।

পৃথিবীজুড়ে বহু প্রেমিক জুটি এ দিন গাঁটছড়া বাঁধবে। এক জীবনে একবার পাওয়া এ দিন স্মরণীয় করে রাখার চেষ্টা করবে সবাই।

এ দিনে নিজের সন্তানের জন্ম হোক, এমন চাইছেন পৃথিবীর বহু অন্ত:সত্ত্বা মা। প্রয়োজনে অস্ত্রোপচার করে হলেও সন্তানকে এ দিনে আলোর মুখ দেখাতে চাইছেন অনেকে। আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেই ঘটছে এ ধরনের ঘটনা।

বছরের অন্য দিনগুলোর সাথে এ দিনটির কোনো মৌলিক পার্থক্য না থাকলেও এদিনে আবেদন অনেক বেশি। শুধুমাত্র ১১.১২.১৩, এমন সরাসরি ক্রমিকের জন্যই বিশ্বজুড়ে দিনটির কদর বেড়ে গেছে বহুগুণ। বহু মানুষ মনে করছে এটি কোনোভাবে সাধারণ দিন নয়, এবং জীবনে এমন দিন পাওয়া খুবই সৌভাগ্যময় বিষয়।

পশ্চিমা বিশ্বে এই দিনটিকে মনে করা হচ্ছে বছরের, এমনকি পুরো শতাব্দীরই রোমান্টিকতম দিন হিসেবে। বিশ্ব মিডিয়ায় নিউইয়র্কের কয়েকটি বিয়ের অনুষ্ঠান পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান নিজেদের অফিসিয়াল ব্লগে জানিয়েছে, এ দিন তিন হাজারেরও বেশি প্রেমিক জুটি বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের মতে, এমন দিয়ে বিয়ে করা মানে; শতাব্দীজুড়েই নিজেদের প্রেম ছড়িয়ে দেওয়া।

নিয়র্কের মতো ল্যাটিন আমেরিকার বহু শহরে দিনটিকে বিশেষভাবে উদযাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দিনটিকে উপলক্ষ করে রচনা করা হয়েছে নতুন নতুন গান। লেখা হয়েছে অসংখ্য কবিতাও।

আমেরিকার মতো এশিয়ারও বহু দেশে দিনটিকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া হচ্ছে। ১১.১২.১৩ এর প্রতিটি সংখ্যার যোগফল দাঁড়ায় ৯, চীনের মানুষ মনে করে ৯ হলো এমন এক প্রতীক; যা দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার প্রমাণ বহন করে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ