Home / বিনোদন / অপু’র দ্বিতীয় ইনিংস

অপু’র দ্বিতীয় ইনিংস

oopu-bg20131228174832নতুন একটা নেশা ধরেছে অপু বিশ্বাসের। সেই নেশার কথা আবার বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে নিজেই বলছেন পরিচিত জনদের। ‘নেশা’ শব্দটার সাথে কেমন যেন একটা ‘নেগেটিভ’ গন্ধ আছে। অপু’র কথা শুনে তাই শ্রোতাদের চোখ-কপালে খানিকটা ভাঁজ পড়ে। জিজ্ঞাসু দৃষ্টিতে মুখে প্রশ্ন, ‘কোন নেশা?

অপু বিশ্বাস পেশায় অভিনেত্রী। নিজের নেশার কথা বলতে গিয়ে তাই আশ্রয়ও নিয়েছেন অভিনয়ের। নেশাটা পুরোটাই ইতিবাচক- ‘নিয়মিত শরীরচর্চা‘। নেশা বলার কারণ, অপু’র দৈনন্দিন জীবনে এখন আর কিছু থাক আর না থাক, শরীরচর্চা হয়ে গেছে অবিচ্ছেদ্য। শুটিং না থাকলে তো কথা-ই নেই, শুটিং থাকলেও সময় বের করে শরীর নিয়ে কিছুক্ষণ পরিশ্রম করা চাই-ই।
উদাহরণ দিতে গিয়ে অপু বললেন, ‘কয়েকদিন আগে যমুনা রিসোর্টে শুটিং করছি। শট দেয়ার মাঝের সময়গুলো খুব অস্থির লাগছিল। হঠাৎ দেখি এক লোক সাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে শুটিং দেখছে। সুযোগ পেয়ে গেলাম। তার কাছ থেকে সাইকেলটা নিয়ে আধ ঘণ্টার মত সাইক্লিং করে ফেললাম।’

অপু বিশ্বাস শরীরচর্চা নিয়ে এত ‘সিরিয়াসনেস’র মাহাত্ম একটাই। অভিনয় ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় ইনিংস ভালো করা চাই। অপু’র ভাষায় ‘নবাগত অপু বিশ্বাস’ কে দেখানো চাই। ২০১২ সালের শেষ দিক থেকে চলচ্চিত্রে অভিনয় বন্ধ করে দেন অপু বিশ্বাস। প্রায় এক বছর নতুন কোন সিনেমার শুটিং করেননি। এসময়ে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকের মত ছিল- অপু বিশ্বাস মুটিয়ে গেছেন। তাই নতুন ছবি তার হাতে নেই। অপু’র অভিনয় ক্যারিয়ারের শেষও দেখছিলেন কেউ কেউ। কিন্তু অপু ফিরে এসেছেন আবারো। কাজ করছেন বেশ কয়েকটি নতুন চলচ্চিত্রে।

যে যেমনই বলুক, অপু কী বলেন তার অভিনয় বিরতি নিয়ে? বিরতির সময়টাতে শারীরিক আর মানসিক ভাবে কতটুকু বদলিয়েছেন নিজেকে? এফডিসিতে এক আড্ডায় তিনি মুখোমুখি হয়েছেন বাংলানিউজের।

অভিনয়ে বিরতি নেয়ার পেছনে হাতে চলচ্চিত্র কমে যাওয়ার কথায় আপত্তি জানালেও ‘মোটা চ্যাপ্টার ক্লোজ’ ‘ বলে স্বীকার করলেন মুটিয়ে যাওয়ার বিষয়টি। আর অভিনয় ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসকে বললেন, ‘নবাগত অপু বিশ্বাস’। আড্ডার চুম্বকাংশ নিচে তুলে ধরা হল…

বর্তমানে কী কী সিনেমার কাজ চলছে?
এখন একই সময়ে একটার বেশি ছবিতে কাজ করি না। বর্তমানে শুটিং চলছে সাফিউদ্দিন সাফি’র ‘রেড: দ্য কালার অব লাভ’। আমার সাথে আছে শাকিব খান। এছড়া কিছুদিন আগে শেষ করলাম বদিউল আলম খোকনের ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’। পুরো ছবির কাজ শেষ। গানের অল্প কয়েকটা দৃশ্য শেষ হয়েছে।
আর সামনে কাজ করব ওয়াকিল আহমেদের ‘শোধ’ ছবিতে। তারপর শাকিবের প্রযোজনায় ‘হিরো: দ্য সুপারস্টার’, বদিউল আলম খোকনের ‘রাজা হ্যান্ডসাম’। এরই ফাঁকে ফাঁকে হবে জাকির হোসেন রাজুর ‘মনের মত মানুষ পাইলাম না’ ছবির কাজ। আরেকটা আছে, নাম- সালাম মালয়েশিয়া। আসলে দেশের বর্তমান পরিস্থিতির কারণে শিডিউলে এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে। অনেক কাজ এর মধ্যে শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

আবার টাইট শিডিউল, আবার দৌড়াদৌড়ি…
হ্যাঁ, টাইট শিডিউল। তবে আগের মত আর রাত দিন কাজ না। এখন সব প্ল্যান করা। আগামী জুন পর্যন্ত টার্গেট সেট করা। এর আগে আগে পরবর্তী ছয় মাসের চিন্তা করব। ব্রেক পুরনো অপুকে ঝেড়ে ফেলেছে। আমি তো রানিং নায়িকা। যখন কাজ বন্ধ করেছি তখনও অন্তত বিশটার মত ছবি ছেড়ে দিয়েছিলাম। এবার আর আগের মত দৌড়াবো না।

রানিং থাকার পরও বিরতিতে যাওয়ার কারণ কী?
২০০৭ প্রথমদিকে যে অপু রান করেছে ২০১২এর শেষ পর্যন্ত; সে অপুকে স্টপ করে দিয়েছিলাম। তখন অনেক ছোট ছিলাম। এ সময়ের আমার সার্বিক পরিস্থিতি মনে হচ্ছিল যে সুবাতাস হচ্ছিল না। সে কারণে নিজের ভালোর জন্য স্টপ হয়ে গেলাম।

বিরতির ফলাফল কী?
২০১৩ সাল অনেকটা সময় যে আমি অনুপস্থিত থাকলাম, তাতে আগের অপু টোটালি ক্লোজ হয়ে গেছে। অপু বিশ্বাসের একটা অধ্যায় শেষ। গত ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘প্রেমিক নাম্বার ওয়ান’ ছবিটাই আগের অপুর শেষ ছবি। এরপর আর সেই অপু নেই। এখন ২০১৪ থেকে আসছে একদমই নতুন অপু। ব্রেক পরবর্তী অপু। এই বিরতিতে আমি নিজেকে চেঞ্জ করার কাজে মনোযোগ দিয়েছি। আমার যে স্ট্রাকচার, চলাফেরা বা অভিনয়ের ধাঁচ, ড্রেসআপ গেটআপ, ছবির গল্পে সিলেকশন এসব বদলাতে হলে বিরতি নিতেই হত।

বিরতির পর এখনকার টার্গেট কী?
প্রথম টার্গেট ফিজিকসের ওপর। তারপর দেখতে হবে কাজের অবস্থা; আমার কাছে কোন কাজগুলো আসছে। থার্ড টার্গেট ইতিমধ্যে করে ফেলা ছবিগুলো দেখে দর্শক যেন পুরনো অপুর অধ্যায় বইবদ্ধ করে রাখে। আবার ২০১৪ তে যেন নতুন অপু যাকে বলে নবাগত অপুকে যেন তারা দেখতে পায়। এ কারণেই মূলত একটু দীর্ঘ বিরতি।

কী কী পরিবর্তন হয়েছে আপনার?
প্রথম পরিবর্তন বিশ কেজি ওজন কমিয়েছি। দ্বিতীয় পরিবর্তন আগে আমি মাসে দু-তিনটির ছবির কাজ করতাম। এখন দুই মাস মিলিয়ে করছি একটা। তার কারণে আমার ড্রেস আপ গেটআপ এবং শরীরের সুস্থতার দিকে মনোযোগ দিতে পারছি।

অ্যাক্টিং ধাঁচ পরিবর্তন করছি, সময় নিয়ে অভিনয় করে নিজেকে যাচাই করছি। সবচেয়ে বড় দিক আমি যেটা চেয়েছিলাম আগের অপুকে সম্পূর্ণ ভেঙে দিতে সেটা পেরেছি। মোটা অপু বিশ্বাসের চ্যাপ্টার ক্লোজ। এখন শুকনো অপুকে দেখবেন দর্শক।

এখন থেকে বছরে কয়টা সিনেমা করবেন?
বছরে ছয়টার বেশি করব না। ইতিমধ্যে ছয়টা সাইন করা হয়ে গেছে। এখন মাসে অভিনয় করব পনের দিন। বাকি পনের দিনের পাঁচদিন টোটালি জিমে, পাঁচদিন ড্রেস আপ নিয়ে যেটার শুটিং করব, আর পাঁচদিন বিউটিফিকেশন। এছাড়া ২০১৪ সালের মাঝামাঝি দিকে চিন্তা করব পরবর্তী কাজগুলো নিয়ে। গল্প, বাজেট কেমন… এসব। যারা অপুকে ক্যারি করতে পারে তাদের ছবি সাইন করব। গৎবাঁধা ছবি আর করব না।

অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসকে ব্যক্তি অপু বিশ্বাস অভিনয়ের জন্য কত নম্বর দেবেন?
নম্বরিং তো দর্শক করবে। তারাই আসল বিচারক। তবে নিজের ছবি দেখতে গিয়ে আমার সবচেয়ে বড় সমস্যা আমার কনফিউশন বেড়ে যায়। আমি আমার পারফেকশন পুরোটা দিয়েই তো কাজ করার চেষ্টা করি। তবে নম্বর যদি দিতেই হয় … দশে নিজেকে …দশই দেব।

নতুন অপুর অভিষেক হচ্ছে কোন ছবি দিয়ে?
সম্ভবত ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ দিয়ে নতুন অপুর চ্যাপ্টার শুরু হবে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ