Home / শিক্ষা / জেএসসি-জেডিসির ফল রোববার
জেএসসি-জেডিসির ফল রোববার

জেএসসি-জেডিসির ফল রোববার

বিরোধীদলের হরতাল-অবরোধে পরীক্ষায় ব্যাঘাত ঘটার পর আরেক কর্মসূচির মধ্যে নির্ধারিত সময়েই অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র মাদ্রাসা সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ হচ্ছে রোববার।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুবোধ চন্দ্র ঢালী জানান, বেলা দুইটায় দেশের শিক্ষা বোর্ডসমূহের ওয়েবসাইট, সংশ্লিষ্ট সকল পরীক্ষা কেন্দ্র, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এসএমএস’র মাধ্যমে একযোগে প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরো জানান, বেলা একটায় শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ফলাফলের সার্বিক তথ্য তুলে ধরবেন।

বিরোধীদলের টানা অবরোধের কারণে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা কয়েক দফা পেছাতে হলেও ঘোষিত সময়ের মধ্যেই এবারো এই ফল প্রকাশ করা হচ্ছে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল বাতিলের দাবিতে রোববার বিরোধীদলের ‘ঢাকা চল’ কর্মসূচি রয়েছে।

গত ৪ নভেম্বর থেকে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও বিরোধী দলের অবরোধের কারণে ১৭টি বিষয়ের পরীক্ষা পিছিয়ে যায়। ২০ নভেম্বর এই পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা শেষ হয় ২২ নভেম্বর।

গত বছর ২৬ ডিসেম্বর একসঙ্গে জেএসসি-জেডিসি এবং প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনীর ফল প্রকাশ করা হয়েছিল।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ঢাকা, রাজশাহী, কুমিল্লা, যশোর, চট্টগ্রাম, বরিশাল, সিলেট, দিনাজপুর এবং মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় ১৯ লাখ দুই হাজার ৭৪৬ শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, কেন্দ্র সচিবগদের কাছ থেকে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কেন্দ্রের আওতাধীন সকল প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা তাদের পরীক্ষার্থীদের ফল সংগ্রহ করতে পারবেন।

সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ ই-মেইল/ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রাপ্ত ফলাফল ডাডনলোড করে প্রকাশ করার জন্য www.educationboard.gov.bd ওয়েবসাইটের ওয়েবমেইল ব্যবহার করে প্রতিষ্ঠানের EIIN মাধ্যমে ফল ডাউনলোড করার পরামর্শ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফল স্ব¦ স্ব কেন্দ্র, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সংগ্রহ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

পরীক্ষার্থীরা শিক্ষা বোর্ডসমূহের ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফল সংগ্রহ করতে পারবে।

এসএমএস’র মাধ্যমে ফল প্রাপ্তির পদ্ধতি টেলিটকের বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যাবে। শিক্ষাবোর্ড, শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা পত্রিকা অফিসে কোনো ফল পাওয়া যাবে না।

এবার শীর্ষ প্রতিষ্ঠান বাছাইয়ের ক্ষেত্রে পাঁচটি প্যারামিটার অনুসরণ করা হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- নিবন্ধিত প্রার্থীদের মধ্যে নিয়মিত পরীক্ষার পাসের হার, শতকরা পাসের হার, মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির হার, পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ও প্রতিষ্ঠানের গড় জিপিএ।

ফল প্রকাশের পর পুনঃনিরীক্ষণের জন্য এসএমএসের মাধ্যমে ৩০ ডিসেম্বর থেকে ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হবে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ