Home / অর্থনীতি ও বানিজ্য / ৩ দিনে বেনাপোল বন্দরে ১,২৪৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি

৩ দিনে বেনাপোল বন্দরে ১,২৪৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি

গত তিন দিনে ভারত থেকে এক হাজার ২৪৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়ে বেনাপোল বন্দরে এসেছে।
ওপারের রফতানিকারক আকাশ দে’র সত্ত্বাধিকারী লক্ষ্মন দে জানান, ভারতের রফতানি নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘ন্যাফিড’ কর্তৃক পেঁয়াজের রফতানি মূল্য এক হাজার ১৫০ মার্কিন ডলারে নির্ধারণ করেছে। তবে কলকাতায় ন্যাফিড কর্তৃক নির্ধারিত পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২১ রুপিতে। যা বাংলাদেশী মুদ্রায় পড়ে প্রতিকেজি ৩০ টাকা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন পেঁয়াজ আমদানিকারক বলেন, “পেঁয়াজ বেনাপোল বন্দরে পৌঁছানোর পর দাম দাড়ায় ৫৫ টাকা। ফলে পাইকারি বাজারে কেজি প্রতি দাম হয় ৬৫ টাকা।”
ভারত সরকার নিজেদের বাজারে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি ঠেকাতে রফতানি বন্ধ না করে ‘কৌশলগত’ রফতানি মূল্য বাড়িয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
বুধবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্টাপোল বন্দর দিয়ে ২৫টি ট্রাকে ৩৭৫টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এর মধ্যে ১০৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজের আমদানিকারকরা হলেন ঢাকার শ্যাম বাজারের নিতা এন্টারপ্রাইজ, এস এম ইন্টারপ্রাইজ, ভাই ভাই ইন্টারন্যাশনাল, এজিএম কর্পোরেশন বলেন আমদানিকারকের প্রতিনিধি শংকর দেবনাথ। বেনাপোলের কিয়ারিং ফরোয়াডিং এজেন্ট ‘আলম এন্টারপ্রাইজ’ এর ম্যানেজার শংকর দেবনাথ বলেন, “ভারতের কলকাতার রয়েল ট্রেডার্স, এফ আহম্মেদ অ্যান্ড কোং, এস আনান্দ ওই পেঁয়াজ রফতানি করেছেন।” বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস কার্গো শাখার সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা (পরিদর্শক) আবদুল আজিজ জানান, মূল্যবৃদ্ধির পর সর্বশেষ বুধবারও ভারত থেকে ৩৭৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।
তিন দিনে ওপার থেকে এক হাজার ২৪৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করেছে। সোমবার ১৯ ট্রাক, মঙ্গলবার ১৮ ট্রাক ও বুধবার আসে ২৫ ট্রাক। প্রতি ট্রাকে ১৫ থেকে ১৬ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আসছে বলেন এই শুল্ক কর্মকর্তা।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ