Home / অর্থনীতি ও বানিজ্য / মুনাফায় এবারো শীর্ষে ইসলামী ব্যাংক

মুনাফায় এবারো শীর্ষে ইসলামী ব্যাংক

বিদ্যুৎ, গ্যাস সঙ্কটের কারণে বিনিয়োগ স্থবিরতা, পুঁজিবাজারের মূল্যপতন, হলমার্ক, বিসমিল্লাহ ঋণকেলেঙ্কারি, সবশেষ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক সঙ্কটের কারণে বিদায়ী বছরে দেশের কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা কমে গেছে। তবে যারা এত দিন পুঁজিবাজারের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন না তাদের মুনাফা কমেনি। বিভিন্ন ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী এ তথ্য জানিয়েছেন।
গতকাল বিভিন্ন ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত অসমাপ্ত তথ্য মতে, বরাবরের মতো এবারো সর্বাধিক মুনাফা করেছে ইসলামী ব্যাংকÑ ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রাইম ব্যাংক ৮৫০ কোটি টাকা। তবে এ দু’টি ব্যাংকে আগের বছরের চেয়ে বিদায়ী বছরে মুনাফার পরিমাণ কমে গেছে।
মুনাফা কমে গেছে এমন ব্যাংকগুলোর মধ্যে ন্যাশনাল ব্যাংকের বিদায়ী বছরে মুনাফা নেমেছে সাড়ে ৬০০ কোটি টাকা, যা গত বছরে ছিল ৭৭০ কোটি টাকা, এক্সিম ব্যাংকের ৫২০ কোটি টাকা, গত বছরে ছিল ৫৩৩ কোটি টাকা, এসআইবিএল বিদায়ী বছরে মুনাফা করেছে ৩২৫ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ৩৬২ কোটি টাকা, শাহজালাল ব্যাংক বিদায়ী বছরে মুনাফা করেছে ৩০০ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ৪৪২ কোটি টাকা।
এ ছাড়া বিদায়ী বছরে মুনাফা বেড়েছে অন্যান্য ব্যাংকগুলোর মধ্যে ইউসিবিএল ব্যাংক মুনাফা করেছে ৭১১ কোটি টাকা, যা গত বছরে ছিল ৫৭৬ কোটি টাকা। আইএফআইসি ব্যাংক মুনাফা করেছে ৪০৩ কোটি টাকা, যা গত বছরে ছিল ৩৪৫ কোটি টাকা। পূবালী ব্যাংক মুনাফা করেছে ৮১৫ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ৬৫১ কোটি টাকা, এনসিসি ব্যাংক গত বছরে মুনাফা করেছে ৪০৪ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ৪০৩ কোটি টাকা, সাউথইস্ট ব্যাংক আগের বছরে মুনাফা করেছিল ৫৬৩ কোটি টাকা, বিদায়ী বছরে করেছে ৬৮০ কোটি টাকা, মার্কেন্টাইল ব্যাংক এবার মুনাফা করেছে ৪২৫ কোটি টাকা, যা আগের বছরে ছিল ৩৪০ কোটি টাকা, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক বিদায়ী বছরে মুনাফা করেছে ৩৩০ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ২৯৫ কোটি টাকা, আল-আরাফা ব্যাংক বিদায়ী বছরে মুনাফা করেছে ৪৭০ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ৪৫২ কোটি টাকা, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক বিদায়ী বছরে মুনাফা করেছে ২০০ কোটি টাকা, আগের বছরে ছিল ১৩৩ কোটি টাকা।
ব্যাংকাররা জানিয়েছেন, ব্যাংকের একটি উল্লেখযোগ্য আয় আসে এলসি কমিশন থেকে। পণ্য আমদানির জন্য ঋণপত্র স্থাপন করে ব্যাংকগুলো উল্লেখযোগ্য মুনাফা করে। কিন্তু বিদ্যুৎ গ্যাস সঙ্কটের পাশাপাশি চলমান রাজনৈতিক সঙ্কটের কারণে বিনিয়োগ স্থবির হয়ে পড়েছে। এ কারণে শিল্পের মূলধনী যন্ত্রপাতিসহ সামগ্রিক আমদানি কমে গেছে। এর প্রভাব পড়েছে মুনাফায়। এ ছাড়া হলমার্ক, বিসমিল্লাহসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ঋণকেলেঙ্কারির কারণে ব্যাংকের খেলাপি ঋণ বেড়ে গেছে। আর খেলাপি ঋণ বেড়ে যাওয়ায় ব্যাংকের প্রভিশন রাখতে হয়েছে বেশি। যেহেতু প্রভিশন সংরক্ষণ করা হয় ব্যাংকের আয় খাত থেকে টাকা টেনে, এ কারণে অতিরিক্ত প্রভিশন সংরক্ষণ করতে গিয়ে ব্যাংকের মুনাফার ওপর প্রভাব পড়েছে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ