Home / জেলার খবর / বাগেরহাটের চিতলমারীতে টমেটো চাষিরা দিশেহারা

বাগেরহাটের চিতলমারীতে টমেটো চাষিরা দিশেহারা

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার টমেটো চাষীরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের নায্যমূল্য না পেয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ছেন। দফায় দফায় হরতাল-অবরোধের কারণে চাষিরা তাদের উৎপাদিত টমেটো পাইকারী বাজারে বিক্রি করতে ব্যর্থ হয়ে স্থানীয় বাজারে কমমূল্যে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। ফলেভেঙ্গে পরেছে এ অঞ্চলের চমেটো চাষীদের অর্থনৈতিক মেরুদন্ড।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, অনাবৃষ্টির ফলে বোরো ধান চাষীরা এবং ভাইরাস সহ নানা সংক্রামন ব্যধিতে চিংড়ি চাষীরা এবছর দারুন ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আর এক্ষতি কাটিয়ে ওঠতে জেলার চিতলমারী উপজেলার কৃষকরা মৌশুমের শুরতে চমেটো চাষ শুরু করে। মোটামুটি উৎপাদন ভাল হলেও গত কয়েক দফার অবরোধে দিন দিন চাষীদের উৎপাদিত টমেটোর দাম কমতে শুরু করে দিয়েছে।
টমেটো চাষী আলমগীর হোসেন তরফদার জানান, প্রতি বছর এ অঞ্চলের টমেটো চাষিরা তাদের উৎপাদিত টমেটো থেকে এলাকার চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে চালান করে অর্থিকভাবে বেশ লাভবান হতেন। কিন্তু রাজনৈতি অস্তিরতার কারনে দফায় দফায় হরতাল- অবরোধের ফলে উৎপাদিত পণ্যের নায্যমূল্য না পেয়ে দেনার দায়ে জর্জারিত হয়ে এখন দিশেহারা হয়ে পড়ছেন। গতকাল উপজেলার সদরের একটি আড়তে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিমন টমেটো বিক্রি হয়েছে ৫০০ টাকা দরে। অর্থাৎ প্রতিকেজি সাড়ে ১২ টাকা। গত এক সপ্তাহ আগে যার দাম ছিল প্রতিমন ২ হাজার ৬০০ টাকা।
চিতলমারী উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের সবজি চাষি শেখর ভক্ত, বিমল মন্ডল, কালশিরার বিকাশ মন্ডল, পাটরপাড়ার মুজিবর বিশ্বাস, ডুমুরিয়ার জয়ন্ত মন্ডল, খড়মখালীর পরিমল মজুমদার, িিতষ, লিটন সিংহ, তাপস ব্যাপারীা জানান, তারা ধান ও চিংড়ি চাষে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পরে স্বপ্ন দেখেন সবজি চাষে লাভবান হবেন। কিন্তু লাগাতর হরতাল-অবরোধে উৎপাদন খরচ না পেয়ে এখন তারা দিশেহারা হয়ে পড়ছেন। তারা আপে করে বলেন, এটা যেন তাদের মরন কল।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ