Home / শীর্ষ সংবাদ / ‘এরশাদকে জোর করে এমপি বানানো হচ্ছে’

‘এরশাদকে জোর করে এমপি বানানো হচ্ছে’

জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ আজ শনিবারও ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি ছিলেন। দলের কেউ কিংবা পরিবারের কোনো সদস্য আজ তার সঙ্গে দেখা করেননি। তবে ‘বিশেষ মারফতে’ এরশাদের কাছ থেকে বার্তা পেয়ে তার বিশেষ উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ বলেছেন, নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্তে তিনি (এরশাদ) এখনও অনড়। এরশাদ তাকে বলেছেন ‘আমি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেছি, তারপরেও সরকার জোর করে আমাকে নির্বাচনে রাখছে, এমপি বানিয়ে দিচ্ছে।’ অন্যদিকে, এরশাদ পত্নী রওশন এরশাদ আজও সারাদিন নিজের গুলশানের বাসায় দলীয় নেতাদের নিয়ে একাধিকবার বৈঠক করেছেন।

এদিকে, এরশাদ ও রওশনের অবস্থান এবং নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়ার প্রশ্নে জাপার কেন্দ্রীয় নেতারা একেকজন একেক কথা বলছেন। সব মিলিয়ে দলটিতে চলছে এক ধরনের ‘গোলক ধাঁ ধাঁ’। এরশাদ সুস্থ না অসুস্থ, আটক না মুক্ত- এসব প্রশ্নেরও কোনো স্পষ্ট জবাব নেই দলের কারও কাছে। দলের যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন, আর যারা করেননি- তারাও পড়েছেন বিভ্রান্তিতে। যারা প্রত্যাহার করেছেন তারা এরশাদের লোক, নাকি যারা করেননি তারা এরশাদের- এনিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে রয়েছে বহুমুখী আলোচনা।

আজও রওশনের সঙ্গে বৈঠকের পর দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য তাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, জাপার যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি তারা ‘লাঙ্গল’ প্রতীক নিয়েই নির্বাচন করবেন। আর নিজেকে এরশাদের মুখপাত্র দাবি করে ববি হাজ্জাজ বলেছেন ‘তাজুল ইসলামের বক্তব্য দলের নয়। জিএম কাদের ও দলের মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এবং আমি ববি হাজ্জাজ যা বলবো সেটিই এরশাদের কথা, দলের চূড়ান্ত বক্তব্য।’

‘এরশাদ নির্বাচনে নেই’

জাপা চেয়ারম্যানের বিশেষ উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ আজ বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে গুলশানে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, এরশাদ তাকে জানিয়েছেন, তিনি এই নির্বাচনের সঙ্গে নেই। যেভাবে নির্বাচন হচ্ছে তাতে গণতান্ত্রিক সরকার আসবে না বলেই পার্টির চেয়ারম্যান নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন। তিনি (এরশাদ) ও তার ভাই জিএম কাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে চাইলেও তা গ্রহণ করা হয়নি। সরকার এমন অনেক কিছুই করছে। কিন্তু তবুও এরশাদ নির্বাচনের সঙ্গে নেই।

এরশাদ আটক না গ্রেপ্তার, এরকম এক প্রশ্নের জবাব না দিয়ে ববি হাজ্জাজ বলেন, এরশাদ সুস্থ আছেন, বহাল তবিয়তে আছেন। আওয়ামী লীগের তোফায়েল আহমদ ও ড. গওহর রিজভী শুক্রবার রাতে এরশাদের সঙ্গে দেখা করেছেন কিনা, জানতে চাইলে তিনি বলেন, মিডিয়ার এমন খবর এরশাদের চোখে পড়েছে, তিনি জানিয়েছেন কেউ তার সঙ্গে সাক্ষাত্ করেননি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ যারা তার মুক্তি দাবি করেছেন, এরশাদ তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

বিকেল ৪টার সময় সংবাদ সম্মেলন করার কথা থাকলেও বিভিন্ন সূত্র বলেছে ববি হাজ্জাজকে সরকারের একটি সংস্থা ডেকে নিয়ে গিয়েছিল। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি কিছুই বলেননি। সংবাদ সম্মেলনটি নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পরে অনুষ্ঠিত হয়।

রওশনের সঙ্গে দলীয় নেতাদের বৈঠক

শুক্রবারের মতো আজ শনিবারও দলীয় নেতাদের নিয়ে কয়েক দফা বৈঠক করেছেন জাপার জ্যেষ্ঠ প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশন এরশাদ। সকাল থেকে দফায় দফায় অনুষ্ঠিত এসব বৈঠকে অংশ নেন- ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, কাজী ফিরোজ রশিদ, লিলি হাসনাত, এম. হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ ও তাজুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ। সেখান থেকে বের হয়ে হাফিজ উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন ‘রওশন এরশাদ শিগগিরই তার অবস্থান স্পষ্ট করবেন।’ আর তাজুল ইসলাম ইসলাম চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন ‘আপনারা তো দেখছেন আমাদের দলের অনেকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি, তারা লাঙ্গল প্রতীকও বরাদ্ধ পেয়েছেন, এর মাকে কি? তার মানে আমরা নির্বাচনে যাচ্ছি।’

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ