Home / শীর্ষ সংবাদ / পরিচালক শুধু সুনামটাই পায় বাকীরা সবাই লাভবান হয়: মতিন রহমান

পরিচালক শুধু সুনামটাই পায় বাকীরা সবাই লাভবান হয়: মতিন রহমান

বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমান,

সাক্ষাৎকারে আলোচনার উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ নিচে লিখিত ভাবে তুলে ধরা হলো

* আসলে সবার শৈশবটা মধুর থাকে। আমার শৈশব কেটেছে নঁওগা জেলার শাহাপুর গ্রামে। সেখানে আমার জন্ম হয়েছে ননার বাড়িতে। নঁওগাতে এবং শান্তাহারে দুই এলাকায় পড়ালেখা করেই আমার বেড়ে উঠা।

* শৈশব বলতে শৈশবের স্মৃতি তো সবার জন্য মধুর থাকে। সেই গ্রামের পাঠশালা, গ্রামের হাট কিংবা শান্তাহার স্টেশনের সেই গাড়ির ঝমঝম অথবা নঁওগার সেই যমুনা নদী সবকিছু একটা স্মৃতিকাতর জায়গা। এখানে আমার বেড়ে উঠা।

* আমি গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করি নঁওগাতে এবং সেখান থেকে ডিগ্রী পাস সমাপ্ত করে ঢাকায় চলে আসলাম।

* আমার চলচ্চিত্রে আসার পেছনে কিছু পেছনের ইতিহাস কাজ করেছে। আমার বড় মামা আজিজুর রহমান এদেশের খুব নামকরা একজন পরিচালক। উনি যখন গ্রামে আসতেন তখন তাকে দেখার জন্য, তার কাছে যাওয়ার জন্য, তার কথা শোনার জন্য প্রচুর লোক ভিড় করতো। আমার আরেক মামা শিক্ষা কমিশনের অফিসার ছিলেন। তখন থেকে আমার পেছনে একটা চিন্তা কাজ করেছিল যে আমি এমন একটা পেশাতে যাবো যাতে মানুষ হয়তো আমাকে একটু চিনবে। আমাকে নিয়ে একটু কৌতূহল থাকবে সেই হিসাব করে ঢাকা শহর আসা এবং এসে ঢাকা ফিল্ম ইনস্টিটিউটে ভর্তি হই। সেই ১৯৭২ সালে সেখান থেকে আমি কোর্স সম্পন্ন করি। পরিচালক আজিজুর রহমানের কাজ থেকে ফিল্ম ওয়ার্কের কাজ শেখা শুরু করি।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ