Home / জাতীয় / জুতাপেটা করায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

জুতাপেটা করায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আহমেদ পাইন ও তাঁর স্ত্রী মরিয়ম বেগমকে জুতাপেটার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে ওই থানার মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ওই স্মারকলিপি দেন মোহাম্মদপুর থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আবদুর রব এলএমজি ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবু সহিদ বিল্লাহ।

স্মারকলিপিতে তাঁরা অভিযোগ করেন, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মোহাম্মদপুরের শাহজাহান রোডের হাউজিং অফিসে যান আহমেদ পাইন ও তাঁর স্ত্রী মরিয়ম বেগম। ওই অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ কাজে আসা বহু মানুষের সামনে স্থানীয় মোহাম্মদপুর থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রাজীব ও আদাবর থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হিটুর নেতৃত্বে বাদশা, বাবুসহ আরও কয়েকজন ওই দম্পতিকে জুতাপেটা করেন। মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান ওরফে মিজানের নির্দেশেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে স্মারকলিপিতে অভিযোগ করা হয়।

একই ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কলেজ গেট এলাকায় অবরোধ করেন মুক্তিযোদ্ধারা। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে এভাবে অপদস্থ করার ঘটনায় তাঁরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রশাসনের কাছে উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেন। পরে পুলিশের অনুরোধে তাঁরা রাস্তা থেকে সরে যান।

স্মারকলিপিতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ আরও অভিযোগ করেছে, হাবিবুর রহমান মিজান স্থানীয় সাংসদ জাহাঙ্গীর কবির নানকের আস্থাভাজন। নানকের নাম ভাঙিয়ে মোহাম্মদপুর এলাকায় তিনি সবকিছুর নিয়ন্ত্রণ করেন। এ ছাড়া তাঁর নামে ভূমিদস্যুতা, চাঁদাবাজি ও ত্রাস সৃষ্টির অভিযোগ আছে। এ বিষয়ে হাবিবুর রহমান মিজান বলেন, ‘আমি এর মধ্যে ঘোষণা দিয়েছি, আমাকে আর মোহাম্মদপুর থানার সাধারণ সম্পাদক বানাতে হবে না। তার পরও কেন আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ?’

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ