Home / জাতীয় / রোববার নির্বাচন, শতাধিক ভোটকেন্দ্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগুন

রোববার নির্বাচন, শতাধিক ভোটকেন্দ্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগুন

রাত পেরোলেই দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচন প্রতিরোধে ১৮ দলের লাগাতার অবরোধ ও ৪৮ ঘণ্টার হরতালের মধ্যেই রোববার সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হবে। এই অবস্থায় সারাদেশের ভোটকেন্দ্রগুলোতে আগুন দেওয়াসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম কেড়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ভোটকেন্দ্র হিসেবে বিভিন্ন জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো পুড়িয়ে দিয়েছেন নির্বাচন বিরোধীরা। এতে শতাধিক স্কুল-মাদ্রাসা-কলেজ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

এসবের মধ্যে বেশিরভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শ্রেণী কক্ষ, বই ও আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফলে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগুন দেওয়ায় নির্বাচন পরবর্তী শিক্ষা কার্যক্রমের স্বাভাবিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। এবিষয়ে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, নির্বাচন প্রতিহতের নামে যারা স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা পুড়াচ্ছে, তারা সভ্যতার শত্রু। দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেশকে তারা বর্বর জাতিতে পরিণত করতে চায়। এদের রুখতে হবে।

রোববারের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশের ভোটকেন্দ্র ও ভোটকেন্দ্র হিসেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগুন ও নির্বাচনী সরঞ্জাম ছিনতাইয়ের খবর দেওয়া হলো:

ঝিনাইদহ 
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দুইটি ও শৈলকুপা পৌরসভার এলাকায় দুইটি ভোটকেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আগুনে চারটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জানালা, দরজা ও আসবাবপত্র ভস্মিভূত হয়।

শৈলকুপা থানার উপ-পরিদর্শক আশিকুর রহমান জানান, শুক্রবার মধ্যরাতে একদল দুর্বৃত্ত ললিত ভুইয়া সরকারী প্রাইমারী স্কুল ও একই উপজেলার ত্রিবেনী সরকারী প্রাইমারী স্কুলের ভোটে কেন্দ্রে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দ্রত পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা স্কুলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এছাড়া সদর উপজেলার বিষয়খালী বাজার ও মহারাজপুর গ্রামের দুইটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দেয়া হয়। স্থানীয় মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর মল্লিক জানান, শনিবার ভোর ৬টার দিকে মটর সাইকেলযোগে এসে প্রথমে বিষয়খালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও পরে মহারাজপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

সীতাকুন্ড
শুক্রবার রাত সীতাকুন্ড পৌরসভা আলম শফী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বুথ তৈরির জন্য রাখা বাঁশ ও কাপড়ে এবং চেয়ারে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

ভোটকেন্দ্রের বুথ তৈরীর সরঞ্জাম পড়ে যায় বলে জানান, সীতাকুন্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসান। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে বলেও তিনি জানান।

বরিশাল
বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় মাধব পাশায় শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাধবপাশা স্কুল অ্যান্ড কলেজের দক্ষিণ পাশের একটি কক্ষে আগুন দেয়া হয়। তবে এতে তেমন কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানান বাবুগঞ্জ থানার ওসি।

সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে শুক্রবার গভীর রাতে ২টি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে, এতে ৪টি কক্ষ পুড়িয়ে যায়।

উপজেলা রিটানিং অফিসার ও নির্বাহী অফিসার তরিকুল ইসলাম জানান, উপজেলা সদরের দেলুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দৌলতপুর ইউনিয়নের চরনবীপুর কান্দাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় আগুন দেয়ার পর স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণ করে।

ফেনী
ফেনীর সোনাগাজি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের গোয়ালিয়া গ্রামে অন্নদাচরণ সরকারি বিদ্যালয় কেন্দ্রে শুক্রবার রাত সোয়া ১০টার দিকে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

সোনাগাজি থানার ওসি সুভাষ চন্দ্র পাল জানান, স্থানীয়রা ছুটে গিয়ে আগুন নেভাতে পেরেছেন। এতে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষ পুরোপুরি পুড়ে গেছে।

নীলফামারী

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাদুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে একটি কক্ষ পুড়ে গেছে। বামুনিয়া ইউনিয়নের গোবাচরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অগ্নিসংযোগের চেষ্টা চালায় দুর্বৃত্তরা।


দিনাজপুর

দিনাজপুর সদর উপজেলার তিনটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে এসব ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাতে সদর উপজেলার বড়ইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিসকক্ষে জানালা দিয়ে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এতে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কক্ষ ও অফিস কক্ষের চেয়ার-টেবিল, জাতীয় পতাকা, রেজাল্ট শিট, বই ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পুড়ে যায়। সকালে স্থানীয়রা পুলিশকে জানালেও এখন পর্যন্ত প্রশাসনের কেউ ঘটনাস্থলে যাননি বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

এদিকে, রাতে চাঁদগঞ্জ ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে স্থানীয়রা এসে আগুন নিভিয়ে ফেলে। এতে ওই ভোট কেন্দ্রের একটি কক্ষের দরজা পুড়ে গেছে।

অপরদিকে, শহরের তবিরউদ্দিন মেমোরিয়াল বিদ্যালয়ে আগুন দিলে ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার-ভিডিপির সদস্যরা আগুন নিভিয়ে ফেলে।

লক্ষ্মীপুর
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার রসূলপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সোনাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় (হোনার বাড়ি) রাঘবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোর রাতে আগুন দেয়া হয়েছে। এতে বিদ্যালয়ের কয়েকটি শ্রেণী কক্ষের বেশ কিছু বই পুড়ে যায়।

টাঙ্গাইল
টাঙ্গাইল-৫ (সদর) ও টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনের চারটি ভোটকেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শনবিার রাতে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে ভোটকেন্দ্রের দরজা ও জানালা পুড়ে গেছে। এগুলো হলো সদর উপজেলার ঢেলি করটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, এইচ এম ইনস্টিটিউট স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র এবং গোপালপুর উপজেলার হাদিরা ইউনিয়নের মাহমুদপুর উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র ও পরশিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

সিলেট

ভোটগ্রহণের মাত্র ৩০ ঘণ্টা আগে সিলেট-৪ (জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ) আসনের জৈন্তাপুর উপজেলার দু’টি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শুক্রবার গভীর রাতে এ আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। কেন্দ্রগুলো হলো: জৈন্তাপুর থানা থেকে প্রায় ৩০০ গজ দূরে উপজেলা সদরের জৈন্তাপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, চারিকাটা ইউনিয়নের তুবাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

মানিকগঞ্জ
মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার দুটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দেয়া হয়েছে। উপজেলার পয়লা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নেহালপুর ব্র্যাক প্রাথমিক বিদ্যায়লয়ের ভোট কেন্দ্রে পেট্রোল দিয়ে এ আগুন দেয়া হয়। এতে উভয় কেন্দ্রের চেয়ার-টেবিল ও আসবাবপত্র ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

মেহেরপুর
মেহেরপুর পৌর শহরের শনিবার বেলা ১১টার দিকে পৌর ভোট কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণ করেছে দুর্বৃত্তরা।

স্থানীয়রা জানায়, শহরের বড়বাজার এলাকায় মোহাম্মদ আলী মাকের্টে সামনে দুইটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে শহরে আতঙ্ক তৈরি করে দুর্বৃত্তরা। পরে তারা পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নেভায়। তবে আগুনে ভোট কেন্দ্রের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

নেত্রকোনা
একতরফা নির্বাচন প্রতিহত ও বানচাল করার লক্ষ্যে নেত্রকোনার চারটি ভোটকেন্দ্র ও দুইটি খড়ের গো-চালা ঘরে আগুন দেয়া হয়েছে। শনিবার ভোররাতে এই ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নেত্রকোনা সদর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের মদনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মনাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চন্দনকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও কলমাকান্দা উপজেলার কৈলাটী ইউনিয়নের কৈলাটী জনতা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোররাতে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটানো হয়। এ ছাড়া কেন্দ্রের পাশ্ববর্তী দুলাল ও খালেক মাস্টারের দুটি খড়ের গো-চালা ঘরেও আগুন ধরিয়ে দেয় অবরোধ ও হরতাল সমর্থকরা। আগুন টের পেয়ে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভান।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেলোয়ার হোসেন বলেন, “তাৎক্ষণিক আগুন নিভিয়ে ফেলায় কেন্দ্রগুলোর তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ভোট গ্রহণে কোনো সমস্যা হবে না।”

পিরোজপুর
পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনের মিরুখালী ইউনিয়নের দেবীপুর বোর্ড সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার দু’টি ইউনিয়নে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাবার পথে নির্বাচনী সরঞ্জামবোঝাই দু’টি পিকআপ ভ্যানে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার ছদাহা ও কেওচিয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটেছে।

এসময় পিকআপ দু’টিতে পুলিশ প্রহরা থাকলেও দুর্বৃত্তদের আক্রমণের পর পুলিশ সদস্যরা পিছু হটে পালিয়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে।

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, নির্বাচনী সরঞ্জামবোঝাই দু’টি ছোট ট্রাকে আগুন দিয়েছে জামায়াত-শিবিরের লোকজন। নির্বাচনী সরঞ্জামের মধ্যে কি কি ছিল সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি।

রাজশাহী
চারঘাটের সারদা সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়, সারদা উচ্চবিদ্যালয়, শলুয়া ডিগ্রি কলেজ ও কালাবিপাড়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে শুক্রবার দিবাগত রাতে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এসব প্রতিষ্ঠান রোববার ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হওয়ার কথা।

নগরের রাজপাড়া থানার ওসি এ বি এম রেজাউল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পাবনা
পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার সামান্যপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে বিদ্যালয়ের দু’টি কক্ষের বেশ কিছু চেয়ার-বেঞ্চ পুড়ে গেছে।

সামান্যপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফসার উদ্দিন জানান, শনিবার সকালে দুর্বৃত্তরা বিদ্যালয়ের জানালা দিয়ে পেট্রোল ঢেলে দু’টি কক্ষে আগুন দেয়। আগুনে বিদ্যালয়ের দু’টি কক্ষের কয়েকটি চেয়ার ও বেঞ্চ পুড়ে যায়। এ সময় গ্রামবাসী দ্রুত বিদ্যালয়ে এসে আগুন নিভিয়ে ফেলে।

গাইবান্ধা
গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার তিনটি ভোট কেন্দ্রসহ চারটি বিদ্যালয়ে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিক থেকে শনিবার ভোর পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এসব নাশকতার ঘটনা ঘটে।

ভোট কেন্দ্রগুলো হলো- পলাশবাড়ী সদর ইউনিয়নের মহেশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের সুলতানপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও মহদীপুর ইউনিয়নের বিশ্রামগাছী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়া উপজেলা সদরের বঙ্গবন্ধু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়েও আগুন দেওয়া হয়।

এদিকে শনিবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার সময় ব্যালট পেপার ও বাক্সে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৫ জানুয়ারি ভোট উপলক্ষে উপজেলা সদর থেকে ব্যালট বাক্সসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে ভটভটিতে করে কুঞ্জমহিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ওই ভটভটিতে পুলিশ ও আনসার সদস্যরাও ছিলেন। ভটভটিটি উপজেলার মহিপুর বাজারে পৌঁছালে শতাধিক লোক এসে তা আটকে দেয়।

পরে তারা ভটভটি থেকে ভোটের ব্যালট বাক্স ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।

সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লতিফুল ইসলাম জানান, আগুনে ব্যালট বাক্স ও প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।

বগুড়া
বগুড়ায় শাজাহানপুর উপজেলার শহীদ জিয়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। ইউএনও আবদুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

নন্দীগ্রাম উপজেলার বুরোইল ইউনিয়নের রিধইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে শুক্রবার দিবাগত রাতে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

কাহালু উপজেলার কল্লাপড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এছাড়া বগুড়ায় মোট পাঁচটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সুনামগঞ্জ
সুনামগঞ্জে দু’টি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার সকাল ৯টার দিকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।

এর মধ্যে ধর্মপাশা উপজেলার সেলরশ ইউনিয়নের সরিসাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি কেন্দ্রে এবং দোয়ারাবাজার উপজেলার মন্নানগাঁও ইউনিয়নের রামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। দোয়ারিকা থানার ওসি আশেক সুজা মামুন এবং ধর্মপাশা থানার ওসি বায়েস আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পটুয়াখালী
পটুয়াখালীর মাদারবুনিয়ার ৬৪নং মধ্য নন্দিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এক তলা ভবনের স্কুলের সবগুলো জানালায় আগুনে পুড়ে যায়।

অন্যদিকে রাজধানীর কদমতলী থানা এলাকার একটি ভোটকেন্দ্র থেকে ৬টি বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কেএম মাইনউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বোমাগুলো উদ্ধার করা হয়।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা বোমাগুলো রেখে যায়। মূলত ভোটকেন্দ্রে নাশকতার উদ্দেশ্যেই বোমাগুলো রাখা হয়েছিল। আমরা এ ঘটনায় জড়িতদের আটক করার চেষ্টা করছি।

এদিকে সাড়ে ১০টার দিকে নারিন্দা এলাকা থেকে ১টি এবং জিন্দা বাহার পার্ক থেকে ২টি ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ।

এছাড়া রাজশাহীতে চারটি, সুনামগঞ্জে তিনটি, নেত্রকোনায় একটি, ভোলায় চারটি, বরগুনায় দুইটি, রংপুরের পীরগঞ্জে চারটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি ভোটকেন্দ্রে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে, কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ, সিলেটের জৈন্তাপুর, নাটোরের সিংড়া, গাইবান্ধা, যশোরের মনিরামপুর ও শেরপুরের ভোট কেন্দ্রে আগুন দেয়ার খবর পাওয়া গেছে। এর আগে বৃহস্পতিবার ফেনীর পাঁচটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগুন দেয়া হয়।

 

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ