Home / রাজনীতি / নির্বাচন বর্জনের আহবান খালেদা জিয়ার

নির্বাচন বর্জনের আহবান খালেদা জিয়ার

আগামী ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনের আহবান জানিয়েছেন বিরোধী দলীয় নেতা ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

শুক্রবার সন্ধ্যায় চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে খালেদা জিয়া এই আহ্বান জানান।

৫ জানুয়ারির নির্বাচন বাতিল ও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ১৮ দলের ৪৮ ঘণ্টা হরতাল আহ্বানের পরপরই এই বিবৃতি দেয়া হয়।

খালেদা জিয়া বলেন, আমি দেশবাসীকে নির্বাচনের নামে ৫ জানুয়ারির এই কলঙ্কময় প্রহসন পুরোপুরি বর্জনের আহবান জানাচ্ছি। এই প্রহসনকে দেশে-বিদেশে কোথাও কেউ নির্বাচন হিসেবে বৈধতা দেবে না। এর মাধ্যমে বৈধতার খোলস ছেড়ে অবৈধ মূর্তিতে আবির্ভূত হবে আওয়ামী লীগ সরকার।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আমরা বলেছিলাম, বাংলাদেশের গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষ একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না। আমাদের কথা সত্য হয়েছে। অর্ধেকের বেশি আসনে নির্বাচনী প্রহসনের ঝুঁকি নিতেও সাহস পায়নি আওয়ামী লীগ। আসনগুলো ভাগবাটোয়ারা করে নিয়ে সিলেকশন করতে হয়েছে তাদের। বাকি আসনগুলোতে বন্দুকঘেরা ভোটারবিহীন জালজালিয়াতির প্রহসনের আয়োজন চলছে।

খালেদা জিয়া অভিযোগ করে বলেন, আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশনের সহযোগিতায় রাষ্ট্রীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাতকারী বাহিনীগুলোকে ভয়ংকরভাবে অপব্যবহার করে গণতন্ত্রনাশের কদর্য অধ্যায় রচনা করা হচ্ছে। তাই ৫ জানুয়ারি চিত্রিত হয়ে থাকবে জঘন্য কলঙ্কময় এক কালো তারিখ হিসেবে।

উল্লেখ্য, নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ১৮ দলের অবরোধ চলছে। এই অবস্থায় শুক্রবার বিকেলে ৪৮ ঘণ্টার হরতালের ডাক দিয়েছে ১৮ দলীয় জোট। এই হরতাল শনিবার ভোর ছয়টা থেকে সোমবার ভোর ছয়টা পর্যন্ত চলবে।

আজকের নিউজ আপনাদের জন্য নতুন রুপে ফিরে এসেছে। সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। - আজকের নিউজ